আন্তর্জাতিক মাপকাঠিতে বাংলাদেশে দারিদ্র্য পরিস্থিতি এখনো প্রকট স্টেট ইউনিভার্সিটির জন বক্তৃতায় ড. আকবর আলি খান

অভ্যন্তরীণ আর্থ-সামাজিক পরিস্থিতির বিবেচনায় দেশে দারিদ্র্য পরিস্থিতির উল্লেখযোগ্য উন্নতি হলেও আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় বাংলাদেশে দারিদ্র্য পরিস্থিতি এখনো প্রকট। আর দারিদ্র্য হারের ক্ষেত্রে পরিস্থিতির উন্নতি হলেও দেশে এখন দরিদ্র মানুষের মোট সংখ্যা ১৯৭২ সনের তুলনায় প্রায় ২.৩৪ কোটি বেড়ে ৯.৩৪ কোটিতে দাঁড়িয়েছে। আর জলবায়ু পরিবর্তন, প্রযুক্তির বিকাশজনিত বেকারত্ব, বাজার চাহিদারসাথে সঙ্গতিপূর্ণ কারিগিরি দক্ষতার ঘাটতি প্রভৃতি কারণে দেশে দারিদ্র্য পরিস্থিতির ক্ষেত্রে এখনো যথেষ্ট ঝুঁকি রয়েছে। স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (এসইউবি) আয়োজিত ‘দারিদ্র্যের ইতিহাস : বর্তমান প্রবণতা’ শীর্ষক জনবক্তৃতায় এসব কথা বলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ড. আকবর আলি খান। স্টেট ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক এম. শাহজাহান মিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত জন বক্তৃতায় অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন এসইউবির প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: আনোয়ারুল কবির ও উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল। পুরো অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ইসইউবির উপদেষ্টা অধ্যাপক রোবায়েতৎ ফেরদৌস। ড. আকবর আলি খানের সংক্ষিপ্ত জীবনবৃত্তান্ত উপস্থাপন করেন এসইউবির ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের পরিচালক আবু তাহের খান। ড. আকবর আলি খান তাঁর বক্তৃতায় বিভিন্ন তথ্য ও পরিসংখ্যান দিয়ে দেখান যে, অতীতে এ ভূখণ্ড কখনোই‘সোনার বাংলা’ ছিল না। আর দারিদ্র্যকে জাদুঘরে পাঠানোর মতো বক্তব্য ও অনেকটা স্লোগানসর্বস্ব।তিনি বলেন, খাদ্য- দারিদ্র্য অনেকাংশে হ্রাস পেলেও অন্যবিধ দারিদ্র্য এখনো বহুলাংশেই রয়েগেছে। বাংলাদেশ ভবিষ্যতে বড় ধরনের কর্মস্থানের ঝুঁকিতে পড়তে পারে ও বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে মাথাপিছু ভূমি কমে যাওয়াকে তিনি দারিদ্র্যের অন্যতম কারণ বলে চিহ্নিত করেন। বিভিন্ন গবেষণা তথ্যের, বিশেষতঃ ড. অমর্ত্য সেনের বক্তব্যের উদ্ধৃতি তিনি দেখান যে, দারিদ্র্য বিমোচনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে আরো বহুদূর যেতে হবে এবং সে জন্য প্রয়োজন মানবাধিকার পরিস্থিতি ও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার উন্নতি। এ দুটি বিষয়ই দারিদ্র্য বিমোচনের অন্যতম পূর্বশর্ত বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন যে, দারিদ্র্য বস্তুত মানুষেরই সৃষ্টি। অতএব এর সমাধান ও মানুষকেই করতে হবে। স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ সম্প্রতি ‘সমকালীন সামাজিক চিন্তা’ শিরোনামে বহুপর্বের একটি ধারাবাহিক বক্তৃতামালা আয়োজনের উদ্যোগ গ্রহণক রেছে। উক্ত বক্তৃতামালারই প্রথম বক্তা ছিলেন ড. আকবর আলি খান। এ বক্তৃতা ২০২০ সালের গোড়ার দিকে প্রকাশের জন্য প্রস্তুতাধীন ড. আকবর আলী খানের বইয়ের খসড়া পাণ্ডলিপির প্রাক-উপস্থাপনা।