স্টেট ইউনিভার্সিটিতে ‘শিল্প-শিক্ষায়তন সংযোগ উন্নয়ন’ শীর্ষক বক্তৃতামালা

স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (এসইউবি)-এর উদ্যোগে আয়োজিত ‘শিল্প-শিক্ষায়তন সংযোগ উন্নয়ন’ শীর্ষক বক্তৃতামালার দ্বিতীয় অনুষ্ঠানে ‘শিক্ষিত তরুণের পেশাগত চ্যালেঞ্জ সমূহ’ বিষয়ে আজ (২১ জানুয়ারি ২০২০) মূল বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ-ভারত শিল্প ও বণিক সমিতি (বিআইসিসিআই)-এর সভাপতি এবং বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমতি ফেডারেশন (এফবিসিসিচই)-এর সাবেক সভাপতি আবদুল মাতলুব আহ্মাদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্টেট ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক এম. শাহজাহান মিনা। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এসইউবির প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ারুল কবির এবং স্বাগত বক্তব্য রাখেন পরিচালক (সিডিসি) আবুতাহের খান।
আবদুল মাতলুব আহ্মাদ তাঁর বক্তৃতায় উল্লেখ করেন, শিক্ষিত তরুণকে পেশা পরিকল্পনা প্রণয়নের ক্ষেত্রে অবশ্যই সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নির্ধারণ করে এগুতে হবে। আর চেষ্টা করতে হবে নিজের শিক্ষাগত পটভূমি ও ব্যক্তিগত আগ্রহের সাথে মিলিয়েতা ঠিক করা। তিনি বলেন,মানসম্পন্ন গুণগত শিক্ষাভিত্তি ইহচ্ছে পেশাগত ক্ষেত্রে সফল হবার মূলশর্ত। তা সেটি চাকরি বা উদ্যেক্তা যাই হোকনা কেন। এসইউবি শিক্ষর্থীদের উদ্দেশ্যে পরামর্শমূলক বক্তব্য হিসেবে তিনি বলেন,চাকরি না খুঁজে উদ্যেক্তা হওয়ার চেষ্টা করো,যা বাড়তি স্বাচ্ছন্দ্য ও স্বচ্ছলতা এনে দিতে পারে।তদুপরি এ প্রক্রিয়ায় বহু মানুষের কর্মসংস্থানের ও সুযোগ সৃষ্টি হতে পারে।
বাংলাদেশের ক্রেতা ও ভোক্তারা খুবই অল্পেতুষ্ট উল্লেখ করে মাতলুব আহ্মাদ বলেন, পৃথিবীর যে কোনো দেশের তুলনায় বাংলাদেশে ব্যবসা করাটা অধিকতর সহজ ও লাভজনক। তবে উদ্যেক্তা হিসেবে সফল হতে হলে অবশ্যই তাকে সৎ ও সাহসী হতে হবে, ব্যাংকের ঋণ ও আত্মসাতের চিন্তা পরিহার করতে হবে। আর বাড়তি মুনাফা করলে সরকারকে ওবাড়তি কর দেওয়ারমানসিকতা থাকতে হবে।তিনি নিটল-নিলয় গ্রুপ ২০ হাজার শিক্ষিত তরুণের কর্মসংস্থান প্রকল্পেযুক্ত হওয়ার জন্য এসইউবি শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানান।
অধ্যাপক এম. শাহজাহান মিনা তাঁর সভাপতির বক্তব্যে বলেন, সারা পৃথিবী জুড়ে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির দ্রুত বিকাশ ঘটছে এবং সে ধারাবাহিকতায় কর্মবাজারের ধরন ও চাহিদাতেও নানামাত্রিক পরিবর্তন যুক্ত হচ্ছে। এসইউবি চেষ্টা করছে, অনিবার্য এসব পরিবর্তন জনিত বাজার চাহিদাকে বিবেচনায় রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রমকে ঢেলে সাজাতে। শিল্পের অন্যবিধ অভিজ্ঞতাকে ও এসইউবি কাজে লাগাতে আগ্রহী। সে আগ্রহ ও উপলব্দি থেকেই ‘শিল্প-শিক্ষায়তনসংযোগউন্নয়ন’শীর্ষক বক্তৃতামালার আয়োজন করা হয়েছে বলে এ উদ্যোগ ভবিষ্যতে ও অব্যাহত থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ব্যবসায়ের জন্য পুঁজি বড় কোনো সমস্যা নয়–মূলসমস্যা সাহসের অভাব। অতএব তোমাদেরকে অবশ্যই সাহসী ও দূরদর্শী হতেহবে।
অনুষ্ঠানে এসইউবির বিভিন্ন অনুষদের ডিন, রেজিস্ট্রার, বিভাগীয় প্রধান, অনুষদ সদস্য ও কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। এসইউবির প্রায় একশ’ শিক্ষার্থী এতে অংশগ্রহণ করেন।