শিক্ষার আলোয় ময়মনসিংহ

সম্প্রতি স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (এসইউবি) এর উদ্যোগে “শিক্ষার আলোয় ময়মনসিংহ” শীর্ষকএকটি সেমিনারের আয়োজন করেছেযেখানে বক্তারা শিক্ষার গুণগত মানকে এর প্রথম প্রয়োজন হিসাবেজোর দিয়েছেন। ছাত্রছাত্রীদের সমাজের ভবিষ্যৎ কর্ণধার হিসেবে গড়ে তুলতে শিক্ষার মানের ক্ষেত্রে কোনো আপস কাম্য নয় বলেও উল্লেখ করেন তারা।

সেমিনারে উদ্বোধনী ও কার্য অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেনযথাক্রমে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান এবং জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ.এইচ.এম মুস্তাফিজুর রহমান। উভয় অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন প্রফেসর ড.মোঃ আনোয়ারুল কবির, ভাইস চ্যান্সেলর, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ। ময়মনসিংহজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এসেমিনারের আয়োজন করা হয়।

সেমিনারের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ময়মনসিংহ কমার্স কলেজের বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান স্বপন ধর। আলোচনায় অংশনেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড.মো: আনোয়ারুল ইসলাম, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ময়মনসিংহেরচেয়ারম্যান প্রফেসর ড. গাজী হাসান কামাল, আনন্দমোহন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড.মো: আমানুল্লাহ। .

প্রফেসর ড. আনোয়ারুল ইসলাম তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন, ময়মনসিংহের মানুষের মধ্যে সাক্ষরতার হার এবং কৃষি-বহির্ভূত কর্মকান্ডে তাদের অন্তর্মুখী কৃষিমুখী চরিত্রের কারণে উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে না। কিন্তু দেশের কৃষি উৎপাদনে এই মানুষগুলোর অবদান অনেক। অধ্যাপক লুৎফুল হাসান বলেন, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা সারা বিশ্বে কৃষি গবেষণা ও শিক্ষায় আধিপত্য বিস্তার করে চলেছে। অধ্যাপক মুস্তাফিজুর রহমান ময়মনসিংহে এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ সেমিনার আয়োজনের জন্য এসইউবিকে ধন্যবাদ জানান। অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ারুল কবির তার দীর্ঘ বক্তৃতায় ময়মনসিংহের একটি সংক্ষিপ্ত ইতিহাস তুলে ধরেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন ঐতিহাসিক পথ ও ঘটনাবলী তুলে ধরে এ বিষয়ে অনেক তথ্য উদ্ধৃত করেছেন।

অন্যান্যদের মধ্যে,প্রফেসরড. সাজিদ বিনদোজা, বিভাগীয় প্রধান, স্থাপত্য কলা বিভাগ, আবু তাহের খান, পরিচালক (সিডিসি) এবং ড. শফিউর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক, ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ডটেকনোলজি বিভাগ আলোচনায় অংশ নেন।

সেমিনারে ময়মনসিংহের বিভিন্ন কলেজের প্রায় ৭০ জন শিক্ষক, ময়মনসিংহপ্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, স্থানীয় মিডিয়ারলোকজন এবং উল্লেখযোগ্য সংখ্যক গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।